সন্দ্বীপবাসীর সাফ কথা- ভাসানচর আমাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক

১৯০২

প্রকাশিত: ২২:২৯, ১০ নভেম্বর ২০১৯   আপডেট: ২২:৪৯, ১৬ নভেম্বর ২০১৯

শেয়ার করুন:-
জাতীয় প্রেসক্লাবে সন্দ্বীপবাসীর সাংবাদিক সম্মেলন

জাতীয় প্রেসক্লাবে সন্দ্বীপবাসীর সাংবাদিক সম্মেলন

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার সাবেক ইউনিয়ন ন্যায়ামস্তি। কয়েক দশক আগে এটি নদী গর্ভে হারিয়ে যায়।সন্ধীপের বাসিন্দাদের দাবি, নদীতে বিলীন হয়ে যাওয়া সেই ন্যায়ামস্তি আবার জেগে উঠেছে। সরকার এর নামকরণ করেছে ভাসানচর এবং এটিকে হাতিয়ার অংশ বলে ঘোষণা করেছে।

নামকরণ নিয়ে সন্দ্বীপবাসীর কোন অভিযোগ না থাকলেও এর মালিকানা হস্তান্তর বিষয়ে রয়েছে ঘোর আপত্তি।  

সন্দ্বীপের সর্বস্তরের মানুষ সরকারের এই সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা করেছে। বিভিন্ন সভা, সেমিনার, মানববন্ধন করে সন্দ্বীপবাসী সরকারের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছে। 

এদিকে ন্যায়ামস্তি তথা ভাসানচর বিলীন হওয়ার কারণে যারা সর্বশান্ত হয়েছিল, এটি জেগে উঠায় বাবা-দাদার ভিটে ফিরে পাবার আশায় বুক বেঁধেছিলেন তারা।

আশার আলো খেলা করছিলো তাদের চোখে মুখে। কিন্তু সরকারের এই সিদ্ধান্ত তারা মেনে নিতে পারছেননা। তাদের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে।        

ভাসানচরকে সন্দ্বীপের অংশ ঘোষনার দাবিতে বিভিন্ন আন্দোলনের অংশ হিসেবে গত ১ নভেম্বর সন্দ্বীপবাসী মানববন্ধন করেছে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে।

এতে অংশগ্রহন করেছিলেন সন্দ্বীপের গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।এছাড়া চট্টগ্রাম, সন্দ্বীপ, আরব আমিরাত ও নিউইয়র্কেও একই দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। 
   
এদিকে রোববার (১০ নভেম্বর) ভাসানচরকে সীমানা নির্ধারণ ব্যতীত হাতিয়া-নোয়াখালীর থানা ঘোষণার প্রতিবাদ ও সন্দ্বীপের মূল ৬০ মৌজা জরিপের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেয়ার দাবিতে প্রধানমন্ত্রী ও ভূমি মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণপূর্বক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। 

সকাল ১১টায় বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের তোফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া অডিটোরিয়ামে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।   

সন্দ্বীপ ডেভেলপম্যান্ট ফোরাম ঢাকার সভাপতি নুরুল আকতারের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন- এডভোকেট মোশাররফ হোসেন, সাবেক অতিরিক্ত সচিব তপন বণিক, সাবেক আইন সচিব কাজী হাবিবুল আউয়াল, এডভোকেট আনোয়ারুল কবির, সাবেক অতিরিক্ত সচিব আব্দুল হালিম, লে. জেনারেল (অব.) চৌধুরী হাসান সারওয়ার্দী, সাবেক সচিব আ ল ম আব্দুর রহমান, ব্রিগেডিয়ার ডা. মোহাম্মদ মহসিন, সাবেক দায়রা জজ আবু সুফিয়ান, সাবেক বিদ্যুৎ সচিব ফওজুল কবির খান, আহমেদ মোস্তফা।  

লে. জেনারেল (অব.) চৌধুরী হাসান সারওয়ার্দী বলেন, রূপ লাবণ্যের অপরূপ লীলাভূমি সাগর দুহিতা সন্দ্বীপ। যার রয়েছে শত বছরের ইতিহাস ঐতিহ্য। নদী ভাঙ্গনের ফলে এই দ্বীপের হাজারো মানুষ তাদের ঘর বাড়ি হারিয়েছে। আমি নিজেও একজন নদী সিকস্তি মানুষ। 

তিনি বলেন, নদী সিকস্তি হওয়ার কারণে সামরিক বাহিনীতে কাজ করার সময় এই শব্দটা আমাকে শুনতে হয়েছে। সন্দ্বীপে ঘর বাড়ি না থাকায় আমার নামের পাশে নদী সিকস্তি লেখা হতো যা অত্যন্ত কষ্টকর ছিল। এ জন্য ২৫ বছর আমি ঢাকাতে পোস্টিং নিয়ে আসতে পারিনি। এখনও আমি বুকের ভেতরে সন্দ্বীপকে খুঁজি। আমার পুরনো ঠিকানা ফিরে পেতে চাই।

মি. হাসান আরও বলেন, ভাসানচরকে সন্দ্বীপের সীমানায় অন্তর্ভুক্তি করতে হলে অবশ্যই প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ প্রয়োজন। এ বিষয়ে তাঁর সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। তাহলেই একটি সুষ্ঠু সমাধান পাওয়া যাবে বলে মনে করি। 

উপস্থিত বক্তারা  সন্দ্বীপের সাবেক ইউনিয়ন নেমস্তিসহ জেগে উঠা সব ভূমি এবং ৬০ মৌজার মালিকানা স্যাটেলাইট জরিপের মাধ্যমে সন্দ্বীপবাসীকে বুঝিয়ে দেয়ার আহ্বান জানান। 

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন-শিক্ষাবিদ শামসুল কবির খান, ব্যবসায়ী মাইনুর রহমান, গ্রামীণ ব্যবসা বিকাশের সাবেক এমডি সালেহা বেগম, শিক্ষাবিদ ও চেরী ব্লোসমস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ এর প্রিঞ্চিপাল ড. সালেহা কাদের, প্রফেসর হান্নানা বেগম, সাংবাদিক কানাই চক্রবর্তী, মনিরুল হুদা বাবন, সেলিনা চৌধুরী, ব্যাংকার মোস্তফা কামাল পাশা, তাহের আহমেদ চৌধুরী বাদল, এ কে এম শাহজাহান প্রমুখ।   

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, আবুল কালাম আজাদ, হুমায়ুন কবির, এস এম যাহেদুল আলম সুমন, আনোয়ারুল আলম মঞ্জু, সাংবাদিক শাহাদাৎ হোসেন আশরাফ, এ আর সোহেল, সাংবাদিক কাজী ইফতেখারুল আলম তারেক, এম এন হুদা।

সন্দ্বীপ ডেভেলপম্যান্ট ফোরাম ঢাকা, সন্দ্বীপ সমাজ উত্তরা ঢাকা, বৃহত্তর মিরপুর সন্দ্বীপ সমাজ ঢাকা, সোনালী মিডিয়া ফোরাম ঢাকা, হরিশপুর ইউনিয়ন নদী সিকস্তি পুনর্বাসন কমিটি ঢাকা, সন্দ্বীপ ষ্টুডেন্ট ফোরাম ঢাকা, সন্দ্বীপ ফ্রেন্ডস সার্কেল এসোসিয়েশন, সন্দ্বীপ ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ, মুছাপুর বদিউজ্জামান হাই স্কুল প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ ও সাউথ সন্দ্বীপ হাই স্কুল প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ এর প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। 

সাংবাদিক সম্মেলনে নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে গণ-অনশন এবং প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের কর্মসূচী ঘোষণা করা হয়।  

শেয়ার করুন:-
জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত